ক্যানসার ও দারিদ্রকে জয় করে আন্তর্জাতিক ম্যারাথনে দ্বিতীয় শ্যামলী

0
51

বছর দুয়েক আগেই ধরা পড়েছিল স্তন ক্যানসার। তখন কলকাতার মেদিনীপুরের শ্যামলীর বয়স মাত্র ২৬। প্রতিশ্রুতিমান এই অ্যাথলিট ভেঙে পড়েননি। পাশে ছিলেন কোচ ও স্বামী সন্তোষও। হয় অস্ত্রোপচার। কিন্তু তারপরেও চিকিৎসা চালিয়েই যেতে হচ্ছিল। এবং সেই চিকিৎসা যথেষ্ট ব্যয়বহুল।

                                                                                                                                                                             

সেই অর্থ জোগাড়ের জন্যই দৌড়ের ট্র্যাকে ফিরতে হয়েছিল শ্যামলীকে। শরীরে মারণরোগ, অস্ত্রোপচার—সবকিছু উপেক্ষা করেই ২০১৭ সালে মুম্বই ফুল ম্যারাথনে দ্বিতীয় হয়েছিলেন শ্যামলী। প্রথম তিনে শেষ করতে পারলে, তবেই মিলত আর্থিক পুরস্কার। দ্বিতীয় হওয়ায় শ্যামলী পেয়েছিলেন ৪ লক্ষ টাকা। সেই টাকাই সাহায্য করেছিল তাঁর চিকিৎসায়।

কলকাতায় টাটা স্টিল আয়োজিত টিএসকে ২৫ কিমি দৌড়ে ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে ফের দ্বিতীয় হয়েছেন শ্যামলী। সময় নিয়েছেন ১ ঘণ্টা ৩৯ মিনিট ২ সেকেন্ড। রবিবার কলকাতার রেড রোডে ১৫,৪৪৫ জন প্রতিযোগী অংশ নেন এই ম্যারাথনে। হাজির ছিলেন আর্জেন্টাইন বিশ্বকাপার হার্নান ক্রেসপো। কলকাতার এই ম্যারাথন আইএএএফ সিলভার লেভেল রোড রেসের স্বীকৃতি পেয়েছে। বিশ্বের আর কোনো রোড রেস এই স্বীকৃতি পায়নি এর আগে।

পুরুষ ও মহিলা বিভাগে প্রথম হয়েছেন যথাক্রমে কেনিয়া ও ইথিওপিয়ার লিওনার্ড বারসোটোন ও গুতেনি সন। ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন কিরণজিৎ কাউর। মাত্র ৬ সেকেন্ডের তফাতে দ্বিতীয় হয়েছেন মেদিনীপুরের শ্যামলী। ক্যানসারকে জয় করে ফেলেছেন বাংলার মেয়ে। পরের লক্ষ্য আরো বড়ো। আর রুপো নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে চান না যে তিনি।

সুত্র: আনন্দবাজার

LEAVE A REPLY