শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন

আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে কিশোর আলো

আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে কিশোর আলো

দেশের শীর্ষস্থানীয় দৈনিক ‘প্রথম আলোর’ শিশু-কিশোর ভিত্তিক ম্যাগাজিন কিশোর আলোর ষষ্ঠ বর্ষপূতি উপলক্ষে আয়োজিত ‘কি-আনন্দের’ ঢাকা পর্বের অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়ে বিকাল সাড়ে তিনটা নাগাদ বৈদ্যুতিক শকে আহত হয়ে হাসপাতালে নেওয়ার পথে পরে মারা যায় রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্র নাইমুল আবরার। এ ঘটনা পরবর্তি সময়ের কার্যক্রমের ফলে ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছে ম্যাগাজিনটির কর্তৃপক্ষ ।

প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, রেসিডেন্সিয়াল কলেজের নিকটস্থ কোনো হাসপাতালে নেওয়ার বদলে নবম শ্রেণির এই ছাত্রকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল মহাখালীর বেসরকারি আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালে। রেসিডেন্সিয়াল কলেজেরই এক শিক্ষক জানান, আয়োজকদের সহযোগী ছিল আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালটি। তাই আয়োজকরা আহত আবরারকে এ্যাম্বুলেন্সে করে সেখানে নিয়ে যান।

এদিকে হাসপাতলের সামনে গতকাল আবরারের মৃত্যুতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারই কলেজের শিক্ষার্থী রিয়াজ। তার প্রশ্ন, ‘মৃত্যুর খবর চেপে রেখে কেন গান চললো, অনুষ্ঠান চললো?’ আবার আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন কার্টুনিস্ট মোরশেদ মিশুও এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এরকম ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানান। এ বিষয়ে কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হক বলেন, নাইমুল আবরারকে চিরকাল স্মরণ করা হবে। এ জাতীয় দুর্ঘটনা কেন ঘটল, তা কঠোরভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তবে ঘটনার পর কিশোর আলোর ফেসবুক পেজে দেওয়া আরেকটি স্ট্যাটাস আবারো উত্তাপ ছড়িয়েছে । সেখানে তারা বলেছে, বড় বড় অনুষ্ঠানে এমন ঘটনা ঘটেই। তাতে অনুষ্ঠান বন্ধ করা যায় না।

অবশ্য প্রথম আলো জানিয়েছে তারা অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত ঘটনা সম্পর্কে অবগত ছিল না। তবে আহত হওয়ার পর আবরারকে কেন দূরের হাসপাতালে পাঠানো হলো কিংবা কিশোর আলোর বিবৃতিতে দেওয়া এমন কথায় অনেকেই বেশ ক্ষুব্ধ। অনেকেই বলছেন প্রথম আলোর মতো বড় পত্রিকার অনুষ্ঠানে এমনটি আশা করা যায় না। উল্লেখ্য, দেশের অনেক জাতীয় দৈনিকই প্রথম আলোর বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে খবর ছেপেছে।

আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved : Chalo Paltai 2018-19
© ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত PJM1337